1. mdmasuk350@gmail.com : Abdul Ahad Masuk : Abdul Ahad Masuk
  2. jobedaenterprise@yahoo.com : ABU NASER : ABU NASER
  3. samagrabangla@gmail.com : admin :
  4. suyeb.mlc@gmail.com : Hafijur Rahman Suyeb : Hafijur Rahman Suyeb
  5. lilysultana26@gmail.com : Lily Sultana : Lily Sultana
  6. mahfujpanjeree@gmail.com : MahfuzurRahman :
  7. mamun@samagrabangla.com : Mahmudur Rahman : Mahmudur Rahman
  8. amshipon71@gmail.com : MUHIN SHIPON : MUHIN SHIPON
  9. yousuf.today@gmail.com : Muhammad Yousuf : Muhammad Yousuf
Title :
‘ইউটিউব’-এ কত ‘ভিউ’ হলে কত টাকা আসে? হবিগঞ্জ উদ্ভাবনী বিজ্ঞান ক্লাবের আন্তঃকমিটির সভা অনুষ্ঠিত সেবার সাধরণ পাঠাগারে বই পড়া প্রতিযোগিতা কুরআন তেলাওয়াত প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান অধিকার করেছেন হবিগঞ্জের তাহসান খেলতে গিয়ে পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু হবিগঞ্জে বিশ্বমানের লেগস্পিনারের সন্ধান ; খেলতে চায় জাতীয় দলে কক্সবাজারে বাস মাইক্রো মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ২ ; আহত ৯ শর্তসাপেক্ষে হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জে যাওয়ার অনুমতি পেলেন মামুনুল হক শায়েস্তাগঞ্জ Rapid ICT কম্পিউটার ট্রেনিং সেন্টারের পুরস্কার বিতরনী অনুষ্ঠান অনলাইন কুইজ প্রতিযোগিতায় শায়েস্তাগঞ্জ কামিল মাদ্রাসার ১ম স্থান অর্জন

সমার্থক শব্দ বা প্রতিশব্দ

  • Update Time : Friday, January 22, 2021

সমার্থক শব্দ:
সমার্থক শব্দ/প্রতিশব্দ:
সমার্থক (সম + অর্থ + ক) শব্দের অর্থ হল সমার্থ বোধক, সমার্থজ্ঞাপক, সমার্থসূচক, একার্থবোধক, এক বা অনুরূপ অর্থ বিশিষ্ট। অর্থাৎ যে সব শব্দ একই অর্থ প্রকাশ করে বা একই অর্থে ব্যবহার করা চলে, তাদেরকে বলা হয় সমার্থক শব্দ বা প্রতিশব্দ।

সমার্থক শব্দের প্রয়োজনীয়তা:
সমার্থক শব্দ বা প্রতিশব্দ বাংলা ব্যাকরণের একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। বাংলা ভাষা ও সাহিত্যের বিকাশ, সৌন্দর্য রূপায়ণ তথা বাক্যের মাধুর্যময় অবয়ব গঠনে প্রতিশব্দ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। বিশেষ করে সাহিত্যের সৃষ্টিশীলতা ও মননশীলতার ভূষণ হল সমার্থক শব্দের ব্যবহার।

সমার্থক বা প্রতিশব্দের নমুনা:

অবকাশ: সময়, ফুরসত, অবসর, ছুটি, সুযোগ।
অরুণ: লাল, আরক্ত, রক্তিম, সূর্যসারথি, নতুনসূর্য।

অপূর্ব: অদ্ভুত, আশ্চর্য, অত্যাশ্চর্য, অভূতপূর্ব, অত্যদ্ভুত, অলৌকিক, অপরূপ, অভিনব, বিস্ময়কর, আজব, তাজ্জব।

অকস্মাৎ: আচমকা, হঠাৎ, সহসা, অতর্কিত, আচম্বিতে, অপ্রত্যাশিতভাবে, দৈবাৎ।

অকাল: অসময়, অবেলা, অদিন, দুর্দিন, কুদিন, অযাত্রা, কালবেলা, বারবেলা, অশুভ তিথি, অশুভ সময়, কুক্ষণ, দুঃসময়।

অক্ষয়: চিরন্তন, ক্ষয়হীন, নাশহীন, অশেষ, অনন্ত, অনিঃশেষ, অন্তহীন, অন্ত, বিহীন, অব্যয়, অবিনাশী, অলয়, অনশ্বর।

অঙ্গ/দেহ: দেহ, শরীর, অবয়ব, গাত্র, বপু, তনু, গতর, কাঠামো, আকৃতি, দেহাংশ।

অতিরিক্ত: অত্যধিক, বেশি, মেলা, অনেক, প্রচুর, প্রতুল, ভূরি, পর্যাপ্ত, বাড়তি, দেদার।

অদৃশ্য: অলক্ষিত, অদৃষ্ট, অলক্ষ্য, অদেখা, অগোচর, অপ্রকট, অলখ, অদর্শিত, নাদেখা।
অনুসরণ: অনুগমন, অনুবর্তন, অনুসৃতি, অনুক্রমণ, পশ্চাদগমন, অনুধাবন, অনুবর্তিতা।

অভাব: অনটন, দারিদ্র্য, দৈন্য, দীনতা, দুরবস্থা, নিঃসম্বলতা, হীনাবস্থা, গরিবি, অসচ্ছলতা, অপ্রাচুর্য, ন্যূনতা, রিক্ততা।

অলস: নিষ্ক্রিয়, নিষ্কর্মা, অকর্মা, শ্রমকাতর, অকেজো, অকর্মণ্য, শ্রমবিমুখ, নিরুদ্যম, জড়প্রকৃতি, ঢিলে, আলসে।

অন্তর: মধ্য, ফাঁক, ছিদ্র, ব্যবধান, তফাত, ভেদ, পার্থক্য, মন, হৃদয়, অপর, ভিন্ন, স্বীয়।

অদ্ভুত: উদ্ভট, আজগুরি, বিচিত্র, বিস্ময়কর, আশ্চর্যজনক, অভিনব, অপূর্ব, অলৌকিক, অভূতপূর্বে, অস্বাভাবিক, ভূতুড়ে।

অতিথি: মেহমান, অভ্যাগত, আগন্তুক, গৃহাগত, নিমন্ত্রিত, আমন্ত্রিত, কুটুম।

অগ্নি:আগুন, অনল, হুতাশন, শিখা, দহন, পাবক, বহ্নি, কৃশানু, সর্বভূক, বৈশ্বানর।

অশ্ব: তুরঙ্গ, তুরগ, তুরঙ্গম, বাজী, ঘোটক, ঘোড়া, হয়

আকাশ: শূন্যলোক, ব্যোম, দ্যুলোক, অন্তরীক্ষ, আসমান, নভঃ, গগন, অম্বর।

অন্ন: ভাত, ওদোন, সিদ্ধ, আহারদ্রব্য, সিদ্ধ।

অন্ধকার: আঁধি, তমঃ, তমসা, তিমির, আঁধার, অমানিশা।

ইচ্ছা:অভিলাস, বাঞ্ছা, স্পৃহা, অভিপ্রায়, সাধ, বাসনা, আকাক্সক্ষা, কামনা, অভিরুচি, প্রবৃত্তি, মনোরথ, ইপ্সা, অভিপ্সা, আশা, এষণা, প্রার্থনা, চাওয়া, মনোবাঞ্ছা, মনোবাসনা, মনস্কাম।

ঈশ্বর:আল্লা, খোদা, ইলাহী, স্রষ্টা, বিশ^পতি, পরমেশ্বর, জগদীশ্বর, জগদীশ, জগৎপতি, জগৎপিতা, জগৎ স্রষ্টা, জগন্নাথ, জগন্ময়, ভাগ্যবন্ধু, আদিনাথ, পৃথ্বিশ, অমরেশ, অন্তর্যামী, লোকনাথ, পরমপুরুষ, পরমেশ্বর, পরমাত্মা, পরেশ, পরমেশ, বিভু, ধাতা, জগদ্ধন্ধু।

কন্যা: তনয়া, নন্দিনী, আত্মজা, দুহিতা।

কোকিল: কলকণ্ঠ, পিক, পরভৃত, কাকপুষ্ট, পরপুষ্ট, অন্যপুষ্ট, বসন্তদূত।

কুল: তীর, তট, তটভূমি, তীরভাগ, কূলভূমি, বেলা, বেলাভূমি, সৈকত, ধার, বালুবেলা, বালুাবেলা, কিনারা, পুলিন, পাড়।

কথা: উক্তি, বচন, কথন, বাক্য, বাণী, ভাষণ, বিবৃতি, বাক্, জবান, বুলি, বোল।

কালো: অসিত, কৃষ্ণবর্ণ, শ্যাম, শ্যামল।

কপাল: তিলক, কপাল, ভাগ্য, অদৃষ্ট, ভাগ্যলিপি।

কেশ/চুল: অলক, চিকুর, কুন্তল, চুল, কবরী।

কিরণ: বিভা, দ্যুতি, আলোক, দীপ্তি, প্রভা, জ্যোতি, রশ্মি, অংশু।

কড়চা: উক্তি, বচন, গল্প, উপাখ্যান, কথকতা, বিবরণ, বৃত্তান্ত, প্রসঙ্গ।

কপোত: পারাবত, কবুতর (কইতর), পায়রা, রেবতর, নোটর।

কর: রাজস্ব, খাজনা, শুল্ক, ট্যাক্স।

কর্ণ: শ্রবণ, শ্রুতি, শ্রবণেন্দ্রিয়, কান

কড়া: কলষ্কচিহ্ন, কঠিন, দৃঢ়, শক্ত, খর, তীব্র।

কাঁদা:কন্দন, কান্না, কাঁদন, রোদন, কান্নাকাটি, অশ্রুপাত, অশ্রুপাত, অশ্রুত্যাগ, ঢুকরানো, ফোঁপানো।

করী/হাতী: দ্বিপ, দন্তী, বারণ, মাতঙ্গ, হস্তী, দ্বিরদ, গজ, হাতি।

কলা: রম্ভা, কদলী, শিল্প, কৌশল, কারিগরি।

কর্কশ: খরখরে, খসখসে, নীরস, নির্মম, শুষ্ক, অমসৃণ, পরুষ।

কষ্ট: মেহনত, যন্ত্রণা, ক্লেশ, আয়াসা, পরিশ্রম, দুঃখ।

খবর: সংবাদ, বার্তা, তত্ত¡, সন্ধান, তথ্য, সন্দেশ, সমাচার, খবরাখবর, বিবরণ, বৃত্তান্ত, নিউজ, খবরাখবর, খোঁজ-খবর, উদন্ত, ফরমান্

খারাপ: মন্দ, কু, বদ, নিকৃষ্ট, দুষ্ট, নষ্ট, অভদ্র, অশ্লীল, রুক্ষ, উগ্র, বিকল।

খাজা: কচকচে, মূর্খ, নিরেট, গোঁয়ারা।

খড়শ: কৃপাণ, অসি, তরবারি, তলোয়ার, ঢাল।

খাদ্য: খাবার, ভোজ্য, ভোজনীয়, ভক্ষ্য, আহার্য, ভোজ্যসামগ্রী, ভোজনদ্রব্য, ভোজদ্রব্য, রসদ, রসুই, খানা।

গৃহ: নিবাস, বাটী, ধাম, ঘর, আগার, সদন, নিকেতন, নিলয়, আলয়।

ঘরনী: গৃহিণী, স্ত্রী, পত্নী, জায়া, দারা, সহধর্মিণী, বিবি, বেগম, কর্ত্রী।

চাঁদ: হিমাংশু, হিমকর, শীতাংশু, সুধাংশু, নিশানাথ, শশধর, শশাষ্ক, বিধু, চন্দ্র, নিশাপতি, মৃগাষ্ক।

চোখ: চক্ষু, অক্ষি, নেত্র, লোচন, নয়ন, আঁখি।

ঠোঁট: চঞ্চু, ওষ্ঠ, অধর।

ঢেউ: কল্লোল, বিপুল, উদ্বেল, তরঙ্গ, ঊর্মি।

তীর: তট, পুলিন, সৈকত, কূল, কিনার, আশ্রয়, অবধি, ধার, পাড়, শর।

তপন: দিনপতি, সূর্য, রবি, ভানু, প্রভাকর, দিনস্বামী

তুলা: তুলাদণ্ড, দাঁড়িপাল্লা, শতপল, ওজন, তুলনা, নিক্তি।

তৃষ্ণা: পিপাসা, জল পানের ইচ্ছা, তেষ্টা, পিয়াসা, আকাক্সক্ষা।

তুষার: বরফ, হিম, হিমানি, তুহিন, নীহার।

দিন: দিবা, দিনমান, অযামিনী, অহনা, অহ্ন, বাসর।

নারী: ভামিনী, সীমন্তিনী, নন্দিনী।

নদী:  শৈবালিনী, তরঙ্গিনী, কল্লোলিনী, প্রবাহিনী, তটিনী, স্রোতস্বতী, স্রোতস্বিনী, সরিৎ।

নিত্য: সতত, সর্বদা, প্রত্যহ, প্রাত্যহিক, নিয়মিত, চিরস্থায়ী, অক্ষয়, চির, অনন্ত, নিত্যকর্ম, রোজ।
নবীন: আনকোরা, নতুন, উদগত, আধুনিক, অধুনা, অর্বাচীন।

পাখি: শকুন্ত, খেচর, বিহঙ্গ, বিহগ, পক্ষী, খগ।

পদ্ম: শতদল, কমল, উৎপল, কোকনদ, সরোজ, পঙ্কজ, নলিনী, তামরস।

পর্বত: মহীন্দ্র, শিকারী, শৃঙ্গ, শৈল, গিরি, পাহাড়, ভূধর, অদ্রি, অচল, মহীধর, মেদিনীধর, নগ।

পুত্র: তনয়, নন্দন, সুত, আত্মজ

পাথর: পাষাণ, প্রস্তর, শিলা, শিল, উপল, আশ্ম, মণি, দৃষৎ, কাঁকর, কঙ্কর।

পৃথিবী: ভূলোক, ভূবন, বসুমতি, বসুন্ধরা, অবনী, অদিতি, ক্ষিতি, ধরা, জগৎ, দুনিয়া, ধরণী, অখিল।

পুষ্প: প্রসুন, ফুল, রঙ্গন, রঙ্গনা, কুসুম।

বাতাস: অনিল, সমীর, সমীরণ, হাওয়া, পবন, বাসু, বাত, মরুৎ।

বন: জঙ্গল, গহন, অটবী, কুঞ্জ, কানন, অরণ্য, বনানী, বিপিন।

বৃক্ষ: বিটপী, তরু, পাদপ, উদ্ভিদ, অটবী, বৃক্ষ, মহীরুহ।

বিবাহ: বিয়ে, পরিণয়, পাণিগ্রহণ, উদ্বাহ, নিকাহ, শাদি।

বিদ্যুৎ: শম্পা, চপলা, সৌদামিনী, ক্ষণপ্রভা, তড়িৎ, বিজলি, দামিনী।

ভ্রমর: মধুলেহ, ভোমরা, মৌমাছি, অলি, শিলীমুখ, মধুকর।

মেঘ: অম্বুদ, নীরদ, জলদ, বারিদ, বলাহক।

মা: মা, মাতা, জননী, জনী, অম্বালা, অম্বা, আম্মা, অম্বালিকা, অম্বিকা, মাতৃ, গর্ভধারিণী, জন্মদাত্রী, প্রসূতি।

মৃত্যু: ইন্তেকাল, বিনাশ, মরণ, নাশ, নিধন, নিপাত, পরলোকগমন, স্বর্গলাভ, দেহত্যাগ, চিরবিদায়, শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ।

মন: চিত্ত, হৃদয়, অন্তর, দিল, পরান, অন্তঃকরণ, হৃদয়তন্ত্রী, মানসলোক

যুদ্ধ: সংগ্রাম, সমর, আহব, বিগ্রহ, যুদ্ধবিগ্রহ, যোধন, রণ, লড়াই, সংঘর্ষ, সংঘাত, সমীক, সংযুগ, প্রঘাত, আয়োধন, যুঝ, প্রতিদারণ, সংখ্য।
রাজা: নরেন্দ্র, ভূপাল, নৃপ, নৃপতি, দন্ডধর, বাদশা।
রাত: নিশীথিনী, শর্বরী, যামিনী, রজনী, রাত, নিশা, নিশি।

তথ্যটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে শেয়ার করুন

More News Of This Category