1. mdmasuk350@gmail.com : Abdul Ahad Masuk : Abdul Ahad Masuk
  2. jobedaenterprise@yahoo.com : ABU NASER : ABU NASER
  3. suyeb.mlc@gmail.com : Hafijur Rahman Suyeb : Hafijur Rahman Suyeb
  4. lilysultana26@gmail.com : Lily Sultana : Lily Sultana
  5. mahfujpanjeree@gmail.com : MahfuzurRahman :
  6. admin@samagrabangla.com : main-admin :
  7. mamun@samagrabangla.com : Mahmudur Rahman : Mahmudur Rahman
  8. amshipon71@gmail.com : MUHIN SHIPON : MUHIN SHIPON
  9. yousuf.today@gmail.com : Muhammad Yousuf : Muhammad Yousuf
ভয়ংকর মাদক এলএসডি - Samagra Bangla

ভয়ংকর মাদক এলএসডি

  • Update Time : Tuesday, June 1, 2021

লাইসার্জিক অ্যাসিড ডাইথ্যালামাইড বা এলএসডি নামে এক ধরনের তরল মাদকের সর্বশেষ সংযোজন হয়েছে। এ এলএসডি সাইকেডেলিক ওষুধ যা মনস্তাত্ত্বিক প্রভাবের জন্য পরিচিত।

ডাকটিকিটের মতো দেখতে যা ব্লটিং পেপারে সংরক্ষণ করা হয়। এলএসডি বিশুদ্ধ অবস্থায় গন্ধহীন এবং পরিষ্কার বা সাদা রঙের হয়।এটি বল্টার কাগজ, চিনির কিউব, বা জেলটিনে বিক্রি করা হয়। এলএসডি অক্সিজেন, অতিবেগুনী রশ্মি, এবং ক্লোরিন সংবেদনশীল। এলএসডি অলো, আদ্রতা এবং স্বল্প তাপমাত্রা থেকে দূরবর্তী স্থানে কয়েক বছর ধরে সংরক্ষিত থাকতে পারে। এলএসডি Ergoline (C14H16N2) পরিবারের অন্তর্ভুক্ত।

যার প্রতিটি ব্লটের সম্ভাব্য বাজার মূল্য ৩-৪ হাজার টাকা। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এলএসডি ড্রাগ মস্তিষ্কে এমন এক প্রভাব সৃষ্টি করে যা হ্যালুসিনেশনে (সম্মোহন) সাহায্য করে। বিভিন্ন রকম রং এবং আকৃতির জিনিস দেখতে পাওয়া যায়, যার অস্তিত্ব পৃথিবীতেই নেই। এই ভয়ংকর মাদক সেবনে এতটাই বিভ্রম তৈরি হয় যে সেবনকারী নিজেকে প্রচণ্ড শক্তিশালী মনে করে। কিছুতেই কিছু হবে না—এমন বেপরোয়া মনোভাব থেকে সেবনকারী হয়ে ওঠে আত্মঘাতী।

শুধু তাই নয়, সেবনকারীর মধ্যে নিজেকে অথবা অন্যকে নিষ্ঠুরভাবে হত্যা করার প্রবণতা প্রবল হয়ে ওঠে। পারিপাশ্বিক পরিবর্তিত সম্পর্কে সচেতনতা, উপলব্ধি, ও সেইসাথে সংবেদন অনুভূত হওয়া, এবং অবাস্তব চিত্রসমূহ বাস্তব মনে হওয়া- প্রভৃতি অনুভুত হয়।

এটি প্রধানত প্রমোদমূলক ওষধ হিসেবে এবং আধ্যাত্মিক উদ্দেশ্য ব্যবহৃত হয়। এলএসডি সাধারণত জিভের নিচে রাখে সেবন করে। ইনজেকশানের সাহায্যেও মাদক সেবনকারীরা শরীরে পুশ করে। মানব মস্তিষ্কে প্রভাব সৃষ্টির জন্য নুন্যতম ২০-৩০ মাইক্রোগ্রাম এলএসডিই যথেষ্ট।

১৯৬৮ সালে বিশ্বব্যাপী এলএসডি নিষিদ্ধ করা হয়। নিষিদ্ধ হওয়ার আগপর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্র ও গ্রেট ব্রিটেনের প্রায় ১০ শতাংশ মানুষ এই ড্রাগ ব্যবহার করেছিল। বর্তমানেও বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে রিক্রিয়েশনাল ড্রাগ হিসেবে এলএসডি ব্যবহৃত হয়ে থাকে। তবে এই ড্রাগ ভারতে এখনো গোপনে ব্যবহার হয়।

সাম্প্রতিক ২৬ মে-২০২১ রাজধানীর একটি বাসা থেকে  এলএসডি নামে এ মাদক জব্দ করে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের রমনা বিভাগ।

তথ্যটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে শেয়ার করুন

More News Of This Category