1. [email protected] : Abdul Ahad Masuk : Abdul Ahad Masuk
  2. [email protected] : ABU NASER : ABU NASER
  3. [email protected] : Hafijur Rahman Suyeb : Hafijur Rahman Suyeb
  4. [email protected] : Lily Sultana : Lily Sultana
  5. [email protected] : MahfuzurRahman :
  6. [email protected] : MUHIN SHIPON : MUHIN SHIPON
  7. [email protected] : Sinbad :
  8. [email protected] : SIFUL ISLAM : SIFUL ISLAM
  9. [email protected] : Muhammad Yousuf : Muhammad Yousuf

কিচেন রুমের নানান কথা যা জানা প্রয়োজনীয়

  • Update Time : Thursday, July 2, 2020

বন্ধুরা আজ আমি আপনাদের কাছে নিয়ে এসেছি কিছু বিশেষ তথ্য যেগুলো আমি আমার রান্নাঘরের জন্য খুব প্রয়োজনীয় বলে মনে করি, তাহলে চলুন দেখে নিন–

১। রান্না ঘর সব সময় পরিস্কার রাখুন ।

২। মশলার কৌটা গুলো সপ্তাহে একদিন করে পরিস্কার করুন, একটা বাটিতে খানিকটা গরম জল নিয়ে তাতে বেশ খানিকটা Baking soda দিয়ে একটা বড় Sponge-র টুকরো ভিজিয়ে পানি চিপে নিয়ে সেই Sponge টা দিয়ে কৌটর গা’গুলো মুছে রাখুন, এতে পোকা বসবে না ।

৩। সবজি কেটে ধুয়ে একটা মোটা পরিস্কার কাপড়ের উপর রাখুন যাতে পানি শুকিয়ে যায়,তাহলে রান্নার সময় গরম তেলে সবজি দিলে তেল ছিটকাবেনা, আর Gas Oven এর পিছনের দেওয়াল নোংরা হবেনা।

৪। বর্ষার সময় খাবার Table এর নুনদানিতে অল্প কিছু চাল দিয়ে রাখুন নুন ঝরঝরে থাকবে ।

৫। যখনই বেশি করে কোনো ডাল,মশলা Store করবেন, তখন সেই ডাল ও মশলা গুলো শুকনো কড়াই এ হালকা করে ভেজে ঠাণ্ডা করে ঢেলে রাখুন অনেক দিন থাকবে , পোকা ও হবেনা।

৬। সবজি কাটার সময় সবজি একটু পাতলা করে কাটুন সবজি ভাজার সময় লবণ দিয়ে দিন তাড়াতাড়ি সিদ্ধ হবে আর Gas ও বাঁচবে।

৭। গোটা মশলা বর্ষার সময় কড়াই এ হালকা গরম করে নিয়ে ঠান্ডা হলে বেতলে বা কৌটায় ঢেলে রাখুন পোকা হবেনা।

৮। কিছু মশলা বাড়িতেই মিক্সিতে গুঁড়ো করে রাখুন, এগুলোর স্বাদ আলাদা হয়, আর রান্নার স্বাদও বাড়ায় ।যেমন দারচিনি, এলাচ, লবঙ্গ, জিরা, ধনে, মৌরী, মরিচ।আলাদা আলাদা করে গুঁড়ো করে রাখুন দরকার মতো ব‍্যবহার করতে পারবেন।

৯। কিছু ডাল কড়াই এ হালকা করে ভেজে ঠান্ডা করে মিক্সিতে আদভাঙা মতো গুড়ো করে কাঁচের বোতলে করে রেখে দিন ,দরকারে গরম পানি ভিজিয়ে মশলা দিয়ে চটজলদি কিছু বড়া বানিয়ে নিতে পারবেন।

১০। কিছু চাল ও ডাল ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে নিয়ে গুঁড়ো করে পরিষ্কার কাচেঁর বোতলে করে রেখে দিন, বাড়ির বাচ্ছাটার জন্য চাল ডালের গুঁড়ো দিয়ে একটু লবণ হলুদ দিয়ে চটজলদি পুষ্টিকর খিচুড়ি বানিয়ে নিতে পারেন অল্প মাখন দিয়ে দারুন লাগবে।

১১। চাল ধুয়ে গুঁড়ো করে রাখলে দুধ ও অল্প Condensed milk মিশিয়ে বাড়ির বাচ্ছার জন্য চটজলদি সুস্বাদু পায়েস বানিয়ে নিতে পারেন।

১২। রান্না ঘরে একটা শিশিতে করে সব সময় কিছু চিনি গুঁড়ো করে রাখুন, যাতে বাড়িতে আসা অতিথির জন্য চটজলদি সরবত, লস্যী, বা কেক বানাতেপারেন বা বাড়িতে থাকা Sugar Patient র Sugar ফল করলে তাকে মুখে দিতে পারেন।

১৩। কিছুটা সুজি কড়াই এ হালকা ভেজে ঠান্ডা হলে মিক্সিতে দিয়ে গুঁড়ো করে রাখুন, চটজলদি ফিরনী বানাতে পারবেন ।

১৪। বেশি করে ধনেপাতা কিনে এনে তার শিকড়ের অংশ বাদ দিয়ে পানি দিয়ে ধুয়ে নিন এবার পানি ভালো করে ঝেড়ে নিয়ে কয়েকদিন রোদে দিয়ে শুকিয়ে নিন । ভালো ভাবে শুকিয়ে গেলে সেগুলো একটা শিশিতে করে রেখে দিন দরকার মতো বের করে কড়াইয়ে দিয়ে একটু গরম করে নিন এবার ঠান্ডা হলে হাত দিয়ে গুঁড়ো করে যেকোন তরকারীতে ব‍্যবহার করতে পারবেন সারাবছর ।

আজ এই পর্যন্ত আরও কিছু দরকারি টিপস পরের পোস্ট পাবেন । ভালো লাগলে লাইক ও শেয়ার করবেন। আমার লেখাটি পড়ার জন্য ধন্যবাদ।

তথ্যটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে শেয়ার করুন

More News Of This Category