1. mahfujpanjeree@gmail.com : Mahfuzur-Rahman :
  2. admin@samagrabangla.com : main-admin :

একমাত্র ট্রেন যার নেই কোন ভাড়া! ৭৩ বছর ধরে বিনামূল্যে ভ্রমণ করছেন যাত্রীরা

  • Update Time : শুক্রবার, মে ২৭, ২০২২

দেশে প্রতিদিন লাখ লাখ মানুষ রেলপথে যাতায়াত করে। কিন্তু আপনি কি জানেন যে ভারতে এমন একটি ট্রেন রয়েছে যেটিতে ভ্রমণ করতে আপনাকে ভাড়া দিতে হবে না। আসুন এই স্পেশাল ট্রেনের কথা বলি। হিমাচল প্রদেশ ও পাঞ্জাব সীমান্তে চলে এই বিশেষ ট্রেন। আপনাকে যদি ভাকরা নাঙ্গাল ড্যাম দেখতে যেতে হয়, তাহলে আপনি বিনামূল্যে এই ট্রেনে ভ্রমণ উপভোগ করতে পারেন।

এই ট্রেনে ভ্রমণ করতে টাকা লাগে না…

আসলে, এই ট্রেনটি নাঙ্গাল থেকে ভাকরা ড্যামের মধ্যে চলে। গত ৭৩ বছর ধরে এই ট্রেন থেকে মোট ২৫ টি গ্রামের মানুষ বিনামূল্যে যাতায়াত করছে। এখন আপনি অবশ্যই জানতে চান কিভাবে এটি সম্ভব। আসুন জেনে নিই কিভাবে রেলওয়ে এই অনুমতি দেয়?লক্ষণীয় যে এই ট্রেনটি ভাকরা বাঁধ সম্পর্কে তথ্য দেওয়ার জন্য চালানো হয়। এর মূল উদ্দেশ্য হল এই বাঁধ তৈরিতে কী কী অসুবিধা হয়েছিল তা জনগণকে জানানো উচিত। এটি ভাকরা বিয়াস ম্যানেজমেন্ট বোর্ড দ্বারা পরিচালিত হয়। জানিয়ে রাখি, পাহাড় ভেঙে তৈরি হয়েছে এই রেলপথ।

৭৩ বছর ধরে মানুষ বিনামূল্যে ভ্রমণ করছে…

আমরা আপনাকে জানিয়ে রাখি যে এই ট্রেনটি ১৯৪৯ সালে চালানো হয়েছিল এবং গত ৭৩ বছর ধরে মানুষ এটি থেকে বিনামূল্যে ভ্রমণ করছে। ২৫টি গ্রামের ৩০০ জন মানুষ প্রতিদিন এই ট্রেনে যাতায়াত করে। এই ট্রেন থেকে ছাত্ররা সবচেয়ে বেশি উপকৃত হয়। ট্রেনটি নাঙ্গল থেকে বাঁধ পর্যন্ত চলে এবং দিনে দুবার যাতায়াত করে। এতে কোনো TTE থাকবে না। ডিজেল ইঞ্জিন চালিত এই ট্রেনটি দিনে ৫০ লিটার ডিজেল খরচ করে। এই ট্রেনের ইঞ্জিন চালু হলে ভাকরা থেকে ফিরে আসার পরই থেমে যায়।

এই ট্রেন কখন ছাড়ে ?

এই হাস ট্রেনটি সকাল ৭:০৫ টায় নাঙ্গল থেকে যাত্রা করে এবং ভাকরা থেকে নাঙ্গল প্রায় ৮:২০ টায় ফিরে আসে। এরপর আবার বিকেল ৩:০৫ মিনিটে নাঙ্গল থেকে ছেড়ে যায় এবং বিকেল ৪:২০ মিনিটে ভাকরা বাঁধ থেকে নাঙ্গলে ফিরে আসে।

সূত্র: ইন্ডিয়ান নিউজ ২৪x৭

তথ্যটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে শেয়ার করুন

More News Of This Category